শেনজেন ভিসা প্রসেসিং এজেন্সি ও শেনজেন ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া

শেনজেন ভিসা প্রসেসিং এজেন্সি হল শেনজেন ভিসা প্রাপ্তিতে সহায়তা করে এমন প্রতিষ্ঠান। আবেদনপত্র পূরণ, প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে পরামর্শ, ইন্টারভিউ প্রস্তুতি ও আবেদন জমা দেওয়া – এসব কাজে তারা সহায়তা করে।
এজেন্সির মাধ্যমে প্রসেসিংএ সুবিধা কি কি: সময় ও হতাশা কমায় ও সফলতার সম্ভাবনা বাড়ায়।

সার্চ করুন অনলাইনে বাংলাদেশে ভাল শেনজেন ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া কোন এজেন্সি করে। মমিন কনসালটেন্সি লিমিটেডকে পাবেন, তার কারন আমারা শেনজেন ভিসা আবেদন প্রক্রিয়াকরণের কাজে অভিজ্ঞ, তাই সেনজেন ভিসা বাংলাদেশ থেকে করতে আপনার সময় ও অর্থ দুটাই বাঁচাবে।

কেন শেনজেন ভিসা প্রসেসিং এজেন্সি কে নিযুক্ত করবো?

মুলত ৪ টি কারনে আপনি এজেন্সি কে নিযুক্ত করবেন, টা নিম্নে দেয়া হল।

  • ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া জটিল ও সময়সাপেক্ষ হতে পারে।
  • এজেন্সি আপনার আবেদন প্রস্তুত করতে, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করতে এবং সাক্ষাৎকারের জন্য প্রস্তুত করতে সাহায্য করবে।
  • এতে আপনার সময় ও ঝামেলা অনেক কমে যাবে।

বিশেষজ্ঞ জ্ঞান পাওয়া যায়:

  • ভিসা আইন ও নীতিমালা প্রায়শই পরিবর্তিত হয়।
  • আপডেট তথ্য সম্পর্কে জানা এবং আপনার আবেদনের জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত কৌশল নির্ধারণ করা কঠিন হতে পারে।
  • একটি ভাল এজেন্সি আপনাকে সর্বশেষ নিয়মকানুন সম্পর্কে অবগত রাখবে এবং আপনার আবেদনকে সফল করার জন্য কাজ করবে।
  • ভিসা আবেদনে ভুল তথ্য বা ভুল পদ্ধতি ব্যবহারের ফলে আবেদন বাতিল হতে পারে।
  • অভিজ্ঞ এজেন্সি আপনার আবেদন নির্ভুলভাবে তৈরি করতে এবং প্রয়োজনীয় সমস্ত নিয়মকানুন মেনে চলতে সাহায্য করবে।
  • এর ফলে আপনার ভিসা পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যাবে।
  • ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া চাপের হতে পারে।
  • একটি এজেন্সি আপনার হয়ে কাজ করে আপনার মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করবে।
  • আপনি নিশ্চিন্তে থাকতে পারবেন যে আপনার আবেদন যত্ন সহকারে পরিচালনা করা হচ্ছে।

সামগ্রিকভাবে, একটি ভাল সেনজেন ভিসা প্রসেসিং এজেন্সি আপনার সময়, অর্থ এবং ঝামেলা বাঁচাতে সাহায্য করতে পারে এবং আপনার ভিসা পাওয়ার সম্ভাবনা উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি করতে পারে।

শেনজেন ভিসা কি এবং কোথায় আবেদন করবো?

শেনজেন ভিসা হচ্ছে ইউরোপের ২৬টি দেশে ভ্রমণের অনুমতি। বাংলাদেশ থেকে শেনজেন ভিসার জন্য আপনাকে সেই দেশের ভিসা এপ্লিকেশন সেন্টার (VAC) এর মাধ্যমে আবেদন করতে হবে, যে দেশটি আপনি প্রথমে যাবেন। ভ্রমণের উদ্দেশ্য, থাকার ব্যবস্থা ও আর্থিক সামর্থ্য সহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিতে হবে।

শেনজেন ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া

শেনজেন ভিসা হচ্ছে ইউরোপের ২৬টি দেশে ভ্রমণের অনুমতি। বাংলাদেশ থেকে শেনজেন ভিসার জন্য আপনাকে সেই দেশের ভিসা এপ্লিকেশন সেন্টার (VAC) এর মাধ্যমে আবেদন করতে হবে, যে দেশটি আপনি প্রথমে যাবেন। ভ্রমণের উদ্দেশ্য, থাকার ব্যবস্থা ও আর্থিক সামর্থ্য সহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিতে হবে।

শেনজেন ভিসা আবেদনের ক্ষেত্রে, আপনার সকল কাগজপত্র নোটারি, প্রত্যয়ন, এবং আইনীকরণের মাধ্যমে জমা দিতে হবে ভিএফএস গ্লোবাল বাংলাদেশ (প্রাঃ) লিমিটেড, মাদানী এভ, ঢাকাতে।

১. কাগজপত্র যা লাগবে:

  • ভিসা আবেদনপত্র
  • পাসপোর্ট ও ছবি
  • ভ্রমণ বীমা
  • আর্থিক সামর্থ্যের প্রমাণ
  • বাসস্থান ও ভ্রমণ পরিকল্পনা

. VAC অ্যাপয়েন্টমেন্ট:

 

৩. আবেদন জমা:

  • নির্ধারিত সময়ে VAC এ আপনার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সহ আবেদনপত্র জমা দিতে হবে।

৪. প্রক্রিয়া:

  • VAC আপনার আবেদন যাচাই করে দূতাবাসে পাঠাবে।
  • দূতাবাস আবেদন যাচাই করে সিদ্ধান্ত নেবে।

৫. ভিসা সংগ্রহ:

  • অনুমোদিত হলে, VAC থেকে ভিসা সংগ্রহ করতে হবে।

একটি সফল শেনজেন ভিসা সাক্ষাৎকারের জন্য গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ

সেনজেন ভিসার প্রস্তুতি:

  • আপনার আবেদন এবং প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নিন।
  • আপনার ভ্রমণের উদ্দেশ্য স্পষ্টভাবে ব্যাখ্যা করতে সক্ষম হোন।
  • আপনার আর্থিক সচ্ছলতা প্রমাণ করতে প্রয়োজনীয় নথিপত্র সাথে রাখুন।
  • ইংরেজিতে স্পষ্টভাবে কথা বলতে সক্ষম হোন।
  • পোশাক পরিচ্ছন্ন ও পেশাদার রাখুন।

সাক্ষাৎকারের সময়:

  • আত্মবিশ্বাসী ও বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণ করুন।
  • সাক্ষাৎকারকারীর সাথে চোখের যোগাযোগ বজায় রাখুন।
  • প্রশ্নের উত্তর সৎ ও স্পষ্টভাবে দিন।
  • প্রয়োজনে প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করতে দ্বিধা করবেন না।
  • ধন্যবাদ জানিয়ে সাক্ষাৎকার শেষ করুন।

শেনজেন ভিসার কি কি যোগ্যতা প্রয়োজন?

ব্যক্তিগত যোগ্যতা

  • বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।
  • একটি বৈধ পাসপোর্ট থাকতে হবে যার মেয়াদ আবেদনের তারিখ থেকে কমপক্ষে ৬ মাস বেশি।
  • ভ্রমণের উদ্দেশ্য অনুযায়ী পর্যাপ্ত আর্থিক সচ্ছলতা প্রমাণ করতে হবে।
  • ভ্রমণ বীমা থাকতে হবে যা শেঙ্গেন এলাকার সমস্ত দেশকে কভার করে।
  • পূর্বের শেঙ্গেন ভিসা লঙ্ঘনের কোনও ইতিহাস থাকতে পারবে না।

ভ্রমণের উদ্দেশ্য অনুযায়ী যোগ্যতা

  • পর্যটন: হোটেল বুকিং, বিমান টিকিট, ভ্রমণ পরিকল্পনা ইত্যাদির প্রমাণ।
  • ব্যবসা: ব্যবসায়িক আমন্ত্রণপত্র, ব্যবসায়িক পরিচয়পত্র ইত্যাদি।
  • গবেষণা: গবেষণা প্রতিষ্ঠান থেকে আমন্ত্রণপত্র, গবেষণা কর্মসূচি ইত্যাদি।
  • পরিবার/বন্ধুদের সাথে দেখা: পরিবার/বন্ধুদের আমন্ত্রণপত্র, তাদের অবস্থানের প্রমাণ ইত্যাদি।

শেনজেন ভিসা প্রাপ্তিতে কোন বিষয় বেশি গুরুত্বপূর্ণ?

  • সঠিক কাগজপত্র: প্রয়োজনীয় সকল কাগজপত্র সম্পূর্ণ ও সঠিকভাবে পূরণ করুন।
  • স্পষ্ট উদ্দেশ্য: ভ্রমণের উদ্দেশ্য স্পষ্টভাবে ব্যাখ্যা করুন এবং যুক্তিসঙ্গতভাবে প্রমাণ করুন।
  • আর্থিক সচ্ছলতা: পর্যাপ্ত আর্থিক সচ্ছলতা প্রমাণ করুন।
  • ভ্রমণ বীমা: ভ্রমণ বীমা করুন।
  • আবাসন: ভ্রমণের সময় কোথায় থাকবেন তার পরিকল্পনা করুন।
  • অনুবাদ: প্রয়োজনে নথিপত্রের অনুবাদ করুন।
  • সাক্ষাৎকারের প্রস্তুতি: ভিসা কর্তৃপক্ষের সাথে সাক্ষাৎকারের জন্য প্রস্তুত থাকুন।

মেনে চললে ভিসা পাওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে অনেক।

শেনজেন ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া কিভাবে করবো?

আবেদন
  • প্রয়োজনীয় ভিসা নির্ধারণ করুন।
  • VAC ওয়েবসাইট থেকে আবেদনপত্র ডাউনলোড ও পূরণ করুন।
  • প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করুন।
আবেদন জমা
  • VAC ওয়েবসাইটে অ্যাকাউন্ট তৈরি এবং অ্যাপয়েন্টমেন্ট নির্ধারণ করুন।
  • নির্ধারিত সময়ে VAC-এ উপস্থিত হয়ে আবেদনপত্র ও কাগজপত্র জমা দিন।
  • আবেদন ফি প্রদান করুন।

শেনজেন ভিসা প্রসেসিং খরচ কত?

শেনজেন ভিসা প্রসেসিং এর খরচ বিভিন্ন কারণের উপর নির্ভর করে, যার মধ্যে রয়েছে
  • ভিসার ধরণ: ট্যুরিস্ট ভিসা, ব্যবসায়িক ভিসা, শিক্ষা ভিসা ইত্যাদির জন্য ফি ভিন্ন।
  • ভিসার মেয়াদ: দীর্ঘমেয়াদী ভিসার জন্য বেশি ফি দিতে হয়।
  • আবেদনকারীর বয়স: ১২ বছরের কম বয়সী শিশুদের জন্য ফি কম।
  • আবেদন প্রক্রিয়া: VAC-এর মাধ্যমে আবেদন করলে অতিরিক্ত সার্ভিস চার্জ দিতে হয়।
প্রায়শই, শেনজেন ভিসা প্রসেসিং এর মোট খরচ হয় ৬০-৮০ ইউরো। এই খরচের মধ্যে ভিসা ফি, VAC সার্ভিস চার্জ, কুরিয়ার চার্জ (যদি প্রযোজ্য হয়) এবং বীমা প্রিমিয়াম অন্তর্ভুক্ত থাকে।

শেনজেন ভিসার মেয়াদ কত দিন থাকে?

  • সর্বোচ্চ ৯০ দিন, ১৮০ দিনের মধ্যে।
  • একটানা থাকা যাবে, অথবা ভাগ করে নেওয়া যাবে।
  • শুধুমাত্র শেনজেন এলাকায় প্রযোজ্য।
  • ভ্রমণের উদ্দেশ্য অনুযায়ী ভিন্ন হতে পারে।

শেনজেন ভিসাতে কত গুলো দেশ বেড়ানো যায়?

  • একটি সেনজেন ভিসা দিয়ে ২৭টি ইউরোপীয় দেশ ভ্রমণ করা যায়।

মমিন কনসালটেন্সি লিমিটেড কেন ভাল এজেন্সি?

মমিন কনসালটেন্সি লিমিটেড: নির্ভরযোগ্য শেনজেন ভিসা প্রসেসিং এজেন্সি, যাদের সুপরামর্শের ভিসা প্রসেসিংএ সহজ করবে।
মমিন কনসালটেন্সি লিমিটেড একটি অভিজ্ঞ প্রতিষ্ঠান যা বিভিন্ন ধরণের ভিসা প্রসেসিংএ সেবা প্রদান করে। দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা এবং দক্ষ টিমের মাধ্যমে তারা সকল ভিসার সেবা প্রদান, শেনজেন ভিসা প্রসেসিং এজেন্সি হিসেবে বেশ জনপ্রিয়।
মমিন কনসালটেন্সি লিমিটেড ব্যবহারের সুবিধা:

নির্ভরযোগ্য ও অভিজ্ঞ পরামর্শদাতা খুঁজছেন? মমিন কনসালটেন্সি লিমিটেড আপনার জন্য।